Articles & Blog

অশ্বিনী নক্ষত্র

Sharing is caring!

অশ্বিনী নক্ষত্র

আমার কাছে যারা তাদের কুন্ডলী দেখতে আসেন তারা ৭০% নিজেদের রাশি, লগ্ন র নক্ষত্র টা জানে দেখেছি।
কিন্তু নক্ষত্র নিয়ে কি হয় সেটা জানেন না।
অনেক জ্যোতিষী আছেন যারা শুধুমাত্র চন্দ্রের নক্ষত্র দিয়ে পুরো মানুষের বিচার করেন।
আর কিছু জ্ঞানী পন্ডিত জ্যোতিষী আছেন যারা 27টি নক্ষত্রের উপর জাতকের জীবন কুন্ডলী বিচাট করেন, এমন জ্যোতিষী আজকাল দূরবীন দিয়ে খুঁজে পাওয়া যায়না।

যেমন উদাহরণ: মঙ্গল অশ্বিনী নক্ষত্রে তাহলে কি হবে?
শুক্র অশ্বিনী নক্ষত্রে, তাহলে কিহবে জাতকের জীবনে?
এইভাবে ৯টা গ্রহ অশ্বিনী নক্ষত্র পেতে পারে, এবং তাদের আলাদা আলাদা ফল আছে, ঠিক ভাবে কোনো জ্যোতিষী বিচার করতে পারলে জায়কের জীবনের ৭০% মিলিয়ে দিতে পারবেন।

সাধারণ পাঠকের উদ্দেশে আজ আমি অশ্বিনী নক্ষত্র ২-৪লাইন লিখতে বসলাম। বাকী নক্ষত্র নিয়ে সময় সুযোগ পেলে লিখবো।

কল্পকথায়

ঘোটকীরূপ ধারিণী সূর্যের পত্নী। এর আরেক নাম সংজ্ঞা। সূর্যের প্রচণ্ড উত্তাপ সহ্য করতে না পেরে নিজের শরীর থেকে নিজরূপ ‘ছায়া’ নাম্নী এক নারীকে বের করে তাকে প্রতিনিধিরূপে রেখে সংজ্ঞা পিত্রালয়ে পলায়ন করেন। তার পিতা বিশ্বকর্মা মেয়ের এহেন আচরণে অত্যন্ত ক্ষুদ্ধ হন। পতিসেবা ত্যাগ করে অতি অন্যায় করেছে, সেজন্যে তার মুখ দেখবেন না বলে হুমকি দেন। সংজ্ঞা অভিমান করেন। পিতার বসতবাটি ত্যাগ করে উত্তর কুরুবর্ষে যান ও ঘোটকীর রূপ ধারণ করে ভ্রমণ করতে থাকেন। এদিকে সূর্য যোগবলে সকল কথা জানতে পারেন। তখন তিনিও অশ্বের রূপ ধারণ করে ঐ স্থানে আসেন। সেখানে কিছুদিন অশ্বিনীর সাথে থাকায় তার গর্ভে সূর্যের ঔরসে অশ্বরূপী যমজ দুই পুত্রসন্তান জন্মে। এই দুই পুত্র অশ্বিনীকুমার নামে পরিচিত হন। তারা চিকিৎসাবিদ্যায় সুপণ্ডিত হয়ে স্বর্গে চিকিৎসা করায় “স্বর্গবৈদ্য” উপাধি পান। তারা মাদ্রীসুত নকুল ও সহদেবের জনক।

অশ্বিনী মনে হলো দুটি ঘোড়া।

প্রিন্স চার্লস এর চন্দ্র অস্বিনী নক্ষত্রে।
প্রচন্ড মানসিক শক্তির অধিকারী হয় এইসকল জাতক।
অশ্বিনী হলো সুর্যের দুই পুত্র, ঘোড়া চালক।
অনেক horse lover এন্ড jocky কে দেখা যায় এই নাক্ষত্রে।

ছটফটে, খেলা প্রিয়, কমিডি করতে পছন্দ করেন।
ফেমাস কমেডিয়ান ” জেরি লেওইস” এর চন্দ্র অশ্বিনী নক্ষত্রে অবস্থান।
চার্লি চ্যাপলিন এর রবি অশ্বিনী নাক্ষত্রে।

এইসকল মানুষেরা প্রকৃতি প্রেমী, ভ্রমণ প্রিয়, এবং সুন্দর দুটি চোখ হয়।

কিং মার্টিন লুথার এর লগ্নে অশ্বিনী।

এদের খারাপ দিক হলো, খুব তাড়াতাড়ি রেগে যায়, একগুয়ে এবং দাম্ভিক হয়ে থাকে।
হিটলারের জন্ম ছকে “রবি” অশ্বিনী নাক্ষত্রে ছিল।

সম্রাট শাস্ত্রী
7890023700

Leave a Reply

Back To Top
shares