Articles & Blog

পথের পাঁচালী (চলচ্চিত্র)

Sharing is caring!

পথের পাঁচালী (চলচ্চিত্র)

16th August 1958 : Satyajit Ray’s Pather Panchali, wins the Top Five Awards at the Vancouver Film Festival

আজকের দিনে ভারতের সিনেমা জগতের এক নতুন অধ্যায় শুরু হয়েছিল।

পথের পাঁচালী ১৯৫৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত পশ্চিমবঙ্গ সরকার প্রযোজিত ও সত্যজিৎ রায় পরিচালিত একটি বাংলা চলচ্চিত্র। বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপন্যাস পথের পাঁচালী অবলম্বনে নির্মিত এই ছবিটি সত্যজিৎ রায়ের পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র। অপু ত্রয়ী চলচ্চিত্র-সিরিজের প্রথম চলচ্চিত্র পথের পাঁচালীর মুখ্য চরিত্র অপুর শৈশবকে কেন্দ্র করে বিংশ শতাব্দীর বিশের দশকে বাংলার একটি প্রত্যন্ত গ্রামের জীবনধারা চিত্রায়িত করা হয়েছে।

সিনেমা জগতে সত্যজিৎ রায় নিয়ে আগেও আমাদের আলোচনা হয়েছে, নতুন করে তার কুন্ডলী নিয়ে আলোচনা না করে দেখা যাক ১৯৫৫ সালে সত্যজিৎ রায় এর শনির দশা এবং শনির অন্তর দশা অতিবাহিত হচ্ছিল।

সাধারণ পাঠকের কাছে অবাক লাগতে পারে, তারা শনির দশা মানেই বিরাট ভয়ের ব্যাপার মনে হতে পারে বা কোনো কোনো জ্যোতিষী এর মুখ থেকে শুনতে পারেন শনির দশা মানেই সর্ব শান্ত, আবার কিছু নতুন নতুন জ্যোতিষীরা বলতে পারেন মেষ লগ্নের জন্য শনি খুব খারাপ, ভালো ফল দেবে না, আবার তার থেকেও কিছু বেশী পড়াশোনা জানা জ্যোতিষী বলতে পারেন চর লগ্নের ১১ পতি বাঁধক, মেষ লগ্নের জন্য শনির দশাতে কোনো ভালো কাজ হতে পারে না।

সত্যজিৎ রায় এর কুন্ডলীতে শনি ৫,১০,১১ ভাবের কারক গ্রহ,
৫ ভাব আপনার সৃষ্টি,
১০, ভাব আপনার কর্ম,
১১, ভাব আপনার সাফল্য।
এই শনি ২,৭ ভাবের নক্ষত্র (শুক্র) অবস্থান।

সকলেই হয়তো জানেন শুক্র ভালো থাকলে না থাকলে কোনো মানুষ সিনেমা বা আর্টিস্টের রাস্তায় হাটতে পারবে না। সত্যজিৎ রায় এর শুক্র লগ্নে বসে আছে,
৭ ভাব দর্শক এর মনোভাব মানসকিতা বুঝতে পারার ক্ষমতা ওই শুক্র শক্তিশালী করে তুলেছিলেন, তার ওপর ৭ভাবে রাহুর অবস্থান সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে দিতে সাহায্য করেছে, রাহুর যেকোনো কাজ করে মাত্রাতিরিক্ত ছড়িয়ে দেয়, তাই দর্শক এর ভালোলাগার জায়গাটা শুক্র আর রাহু মিলে অতিরিক্ত প্রভাবিত করেছেন।

১৯৫৫ সালে শনি সত্যজিৎ রায় এর কুন্ডলীতে ৭মে অবস্থান করেছিল, সকল সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখে অতি সাধারণ ঘরের একটা ছোট ছেলের জবন কাহিনী নিয়ে জীবনের প্রথম সিনেমা নির্মাণ এর কথা ভেবেছিলেন সত্যজিৎ রায়।

১৯৫৮ সালে ভারতের বাইরে বিদেশে তার ছবি নিয়ে রিসার্চ করা হয়, সকল সিনেমা জগতের মাথা তার ছবি নিয়ে মাতামাতি করলেন।

৮ ভাব থেকে আমরা রিসার্চ এর বিচার করি।

১৬/০৮/১৯৫৮
শনির দশা আর বুধের অন্তর দশা

বুধ ৩,৬ পতি লগ্নে কেতুর নক্ষত্র, কেতু লগ্নে অবস্থান।

৩ ভাব, কংনেক্টিভিটি,
Vancouver Film Festivপথের পাঁচালী (চলচ্চিত্র)

16th August 1958 : Satyajit Ray’s Pather Panchali, wins the Top Five Awards at the Vancouver Film Festival

আজকের দিনে ভারতের সিনেমা জগতের এক নতুন অধ্যায় শুরু হয়েছিল।

পথের পাঁচালী ১৯৫৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত পশ্চিমবঙ্গ সরকার প্রযোজিত ও সত্যজিৎ রায় পরিচালিত একটি বাংলা চলচ্চিত্র। বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপন্যাস পথের পাঁচালী অবলম্বনে নির্মিত এই ছবিটি সত্যজিৎ রায়ের পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র। অপু ত্রয়ী চলচ্চিত্র-সিরিজের প্রথম চলচ্চিত্র পথের পাঁচালীর মুখ্য চরিত্র অপুর শৈশবকে কেন্দ্র করে বিংশ শতাব্দীর বিশের দশকে বাংলার একটি প্রত্যন্ত গ্রামের জীবনধারা চিত্রায়িত করা হয়েছে।

সিনেমা জগতে সত্যজিৎ রায় নিয়ে আগেও আমাদের আলোচনা হয়েছে, নতুন করে তার কুন্ডলী নিয়ে আলোচনা না করে দেখা যাক ১৯৫৫ সালে সত্যজিৎ রায় এর শনির দশা এবং শনির অন্তর দশা অতিবাহিত হচ্ছিল।

সাধারণ পাঠকের কাছে অবাক লাগতে পারে, তারা শনির দশা মানেই বিরাট ভয়ের ব্যাপার মনে হতে পারে বা কোনো কোনো জ্যোতিষী এর মুখ থেকে শুনতে পারেন শনির দশা মানেই সর্ব শান্ত, আবার কিছু নতুন নতুন জ্যোতিষীরা বলতে পারেন মেষ লগ্নের জন্য শনি খুব খারাপ, ভালো ফল দেবে না, আবার তার থেকেও কিছু বেশী পড়াশোনা জানা জ্যোতিষী বলতে পারেন চর লগ্নের ১১ পতি বাঁধক, মেষ লগ্নের জন্য শনির দশাতে কোনো ভালো কাজ হতে পারে না।

সত্যজিৎ রায় এর কুন্ডলীতে শনি ৫,১০,১১ ভাবের কারক গ্রহ,
৫ ভাব আপনার সৃষ্টি,
১০, ভাব আপনার কর্ম,
১১, ভাব আপনার সাফল্য।
এই শনি ২,৭ ভাবের নক্ষত্র (শুক্র) অবস্থান।

সকলেই হয়তো জানেন শুক্র ভালো থাকলে না থাকলে কোনো মানুষ সিনেমা বা আর্টিস্টের রাস্তায় হাটতে পারবে না। সত্যজিৎ রায় এর শুক্র লগ্নে বসে আছে,
৭ ভাব দর্শক এর মনোভাব মানসকিতা বুঝতে পারার ক্ষমতা ওই শুক্র শক্তিশালী করে তুলেছিলেন, তার ওপর ৭ভাবে রাহুর অবস্থান সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে দিতে সাহায্য করেছে, রাহুর যেকোনো কাজ করে মাত্রাতিরিক্ত ছড়িয়ে দেয়, তাই দর্শক এর ভালোলাগার জায়গাটা শুক্র আর রাহু মিলে অতিরিক্ত প্রভাবিত করেছেন।

১৯৫৫ সালে শনি সত্যজিৎ রায় এর কুন্ডলীতে ৭মে অবস্থান করেছিল, সকল সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখে অতি সাধারণ ঘরের একটা ছোট ছেলের জবন কাহিনী নিয়ে জীবনের প্রথম সিনেমা নির্মাণ এর কথা ভেবেছিলেন সত্যজিৎ রায়।

১৯৫৮ সালে ভারতের বাইরে বিদেশে তার ছবি নিয়ে রিসার্চ করা হয়, সকল সিনেমা জগতের মাথা তার ছবি নিয়ে মাতামাতি করলেন।
৮ ভাব থেকে আমরা রিসার্চ এর বিচার করি।

১৬/০৮/১৯৫৮
শনির দশা আর বুধের অন্তর দশা

বুধ ৩,৬ পতি লগ্নে কেতুর নক্ষত্র, কেতু লগ্নে অবস্থান।

৩ ভাব, কংনেক্টিভিটি,
Vancouver Film Festival সত্যজিৎ রায়কে ডেকে পাঠান।
তাকে পুরস্কৃত করা হয়।

এরপরের বাকি জীবনটা ইতিহাস।
আবার কোনো একদিন আসবো আমরা এইভাবেই ওনার জীবনের অন্য কোনো গল্প নিয়ে।

সম্রাট বোস
7890023700al সত্যজিৎ রায়কে ডেকে পাঠান।
তাকে পুরস্কৃত করা হয়।

এরপরের বাকি জীবনটা ইতিহাস।
আবার কোনো একদিন আসবো আমরা এইভাবেই ওনার জীবনের অন্য কোনো গল্প নিয়ে।

সম্রাট বোস
7890023700

Leave a Reply

Back To Top
shares