Articles & Blog

শুভ জন্মদিন উত্তম কুমার

Sharing is caring!

#######শুভ জন্মদিন উত্তম কুমার######

উত্তম কুমার

প্রখ্যাত চলচ্চিত্র অভিনেতা। মহানায়ক নামে খ্যাত। প্রকৃত নাম অরুণকুমার চট্টোপাধ্যায়ের আজ জন্মদিন।
তুলা লগ্ন আর কর্কট রাশিতে জন্ম হয়ে ছিলেন মহানায়কের, চন্দ্রের ও শুক্রের সহাবস্থান।
সুন্দর মুখের গড়ন আর শিল্পী মানিষিকতা চন্দ্র আর শুক্র প্রদান করেছিলেন।

বাবার নাম সাতকড়ি চট্টোপাধ্যায় এবং মায়ের নাম চপলা দেবী।

শিক্ষাজীবনের শুরুতে তিনি চক্রবেড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হন। পরে কলকাতার সাউথ সাবার্বা‌ন স্কুল থেকে ম্যাট্রিক পাস করেন এবং পরে গোয়েঙ্কা কলেজে ভর্তি হন।

৪-৫ পতি শনি লগ্নে থাকায় এবং ৪তে বৃহস্পতির অবস্থান থাকায় উত্তম কুমার পড়াশোনায় আগে গড়াই খুবই ভালো ছিলেন।

১৯৪৪ খ্রিষ্টাব্দে পোর্ট কমিশনার্সে ক্যাশিয়ার হিসেবে চাকরি শুরু করেন।
১০মে ১০ম পতি চন্দ্র এবং শুক্র থাকায় চাকুরিতে মন খুব কম ছিল, কাজের মধ্যে তিনি সেই চ্যালেঞ্জ খুঁজে পেতেন না, কোথায় যেন খালি খালি লাগতো, চন্দ্র +শুক্র মানুষকে ফসিনাটিভ ওয়ার্ল্ড বা আর্টিস্টিক ওয়ার্ল্ডে টেনে নিয়ে যেতে চায়।

বুধের দশা এবং বুধের অন্তর দশাতে,
১৯৪৭ খ্রিষ্টাব্দে হিন্দি মায়াডোর নামে একটি ছবিতে অভিনয় করেন। শেষ পর্যন্ত ছবিটি মুক্তিলাভ করে নি।

বুধ ৯-১২ পতি হয়ে ১১সে আবস্থান করেছে, সুযোগ এসেও হাতের বাইরে চলে গেল।
দশা পতির অন্তর দশায় কখনোই ভালো যায়না এটা জেনে রাখতে হবে।

বুধের+শুক্রের দশায়:
১৯৫০ খ্রিষ্টাব্দের ১লা জুন তিনি গৌরীদেবীকে বিবাহ করেন। এই বৎসরে তিনি খণ্ডকালীন পিএম প্রোডাকশনে ৪০০ রুপি মাসিক বেতনে অভিনেতার চাকরি করেন।
দশা পতি বুধ ৭মে এবং অন্তর দশা পতি শুক্র জন্ম কালীন স্বস্থানে অবস্থানে উত্তম কুমারের বিবাহ হয়, ৫মে রাহুর অবস্থানে।

৫পতি শনি, এটি একটি পুরুষ গ্রহ, যেই গ্রহ তার লগ্নে অবস্থান উচ্চস্ত্ত হয়ে,
১৯৫১ খ্রিষ্টাব্দের ৭ই সেপ্টেম্বর তাঁর পুত্র গৌতমের জন্ম হয়।

বুধ+রবির দশায়:
১৯৫২ খ্রিষ্টাব্দে তাঁর অভিনীত ‘বসু পরিবার’ মুক্তি পায়। এই বৎসরের ডিসেম্বর মাসে তিনি পোর্ট কমিশনার্স-এর চাকরি ত্যাগ করেন।
রবি ১১পতি এবং ১১সে অবস্থান করে প্রবল বলশালী হয়ে উত্তম কুমারের জীবনে বড়ো রাস্তা খুলে দিলেন।
আমি প্রচুর মানুষ দেখেছি, তুলা লগ্নের ক্ষেত্রে রবি তাদের জীবনে মারাত্মক ফলদায়ী হয়ে ওঠে।

বুধ+ চন্দ্র দশায়: ৯,১০,১১,১২

১৯৫৩ খ্রিষ্টাব্দে তিনি স্টার থিয়েটারে ‘শ্যামলী’ নাটকে অভিনয় করেন। এই বৎসরেই মুক্তি পায় ‘সাড়ে চুয়াত্তুর’ নামক ছবি। এই ছবিতে তিনি প্রথম সুচিত্রা সেন-এর বিপরীতে অভিনয় করেন। এই ছবির মাধ্যমে বাংলা চলচ্চিত্র জগতের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং সফল উত্তম-সুচিত্রা জুটির সূত্রপাত হয়।
উত্তম কুমার চন্দ্রের অন্তর্দশায় তার মনের মতন কাজ শুরু করেন, ১০পতি চন্দ্র ১০মে অবস্থান করে শক্তিশালী হয়েছেন। তার জীবনের মনের মতন কাজ পেলেন।

১৯৫৬ খ্রিষ্টাব্দে তিনি প্রথম প্লেব্যাক করেন ‘নবজন্ম’ ছবিতে।
১৯৫৭ খ্রিষ্টাব্দে মুক্তি পায় তাঁর প্রযোজিত ছবি ‘হারানো সুর’।

চলচ্চিত্রে অভিনয়ের সূত্রে উত্তম কুমারের সাথে সুপ্রিয়াদেবীর ঘনিষ্টতা শুরু হয়। সুপ্রিয়া দেবী ও সুচিত্রা সেনের সাথে গভীর সম্পর্কের কারণে তাঁর তাঁর দাম্পত্য জীবনে সঙ্কটের সৃষ্টি হয়। এক সময় উত্তম কুমারের সাথে গৌরীদেবীর বিচ্ছেদ ঘটে। ১৯৬২ খ্রিষ্টাব্দের ২ ডিসেম্বর সুপ্রিয়াদেবীকে বিবাহ করেন। এরপর আমৃত্যু তিনি সুপ্রিয়াদেবীর সাথে কাটান। এই বিয়ের আগে উত্তম

১৯৬৬ খ্রিষ্টাব্দে মুক্তি পায় তাঁর পরিচালিত ছবি ‘শুধু একটি বছর’। এই বৎসরে মুক্তি প্রাপ্ত ‘কাল তুমি আলেয়া’ ছবিতে সঙ্গীত পরিচালনা করেন।

শুক্র+বৃহস্পতি+বৃহস্পতি

১৯৮০ খ্রিষ্টাব্দে তাঁর শেষ ছবি ‘ও্গো বধূ সুন্দরী’ মুক্তি পায়। এই বৎসরের ২৪ জুলাই তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

সম্রাট বসু
7890023700

Leave a Reply

Back To Top
shares