Articles & Blog

Swati nakhastra

Sharing is caring!

…………………স্বাতী নক্ষত্র………………

স্বাতী নক্ষত্রের দেবতা হলেন বায়ু।
যাহা অবস্থান করে তুলা রাশিতে।

প্রথমে বুঝতে হবে আমাদের বায়ুকে আমরা কিভাবে দেখি বা বুঝি।
তাহলেই আমরা এই নক্ষত্রের মানুষদের বুঝতে পারব, নাহলে বোকার মতন আমাদের আলোচনা করতে হবে, স্বাতী নক্ষত্র হলো রাহুর নক্ষত্র, আবার দেখুন রাহু কোথায় বসে আছে, তারপরে রাহু কোন নক্ষত্রে বসে আছে। এখানেই খেলা শেষ, কবি কাঁদতে শুরু করে দেবে।

ভারতীয় আর্যরা ভারতবর্ষের প্রবেশের সময় যে সনাতন ধর্মে বিশ্বাসী ছিলেন, তাতে বায়ু দেবতা বিশেষ মর্যাদায় অধিষ্ঠিত ছিলেন। প্রাচীন ইরানি জেন্দ ভাষায় লিখিত অবস্থা নামক ধর্মগ্রন্থে বায়ু দেবের নাম পাওয়া যায়। ভারতীয়া আর্যরা খ্রিষ্টপূর্ব ১২০০ অব্দের দিকে ঋগ্বেদ রচনা করেন। ওই গ্রন্থে বায়ু দেবতাকে বিশিষ্ট দেবতা হিসেবে উল্লেখ করেছেন। ঋগ্বেদের প্রথমমণ্ডল-এর দ্বিতীয় সূক্তে বায়ু দেবতাকে আহ্বান করা হয়েছে।
ঋগ্বেদের নাম পাওয়া যায় ‘বায়’ হিসাবে। কখনো কখনো বায়ু এবং ইন্দ্রকে একার্থে উল্লেখ করা হয়েছে।

হিন্দু দর্শনে বায়ু
ভূতল থেকে উপরের দিকে অবস্থিত বায়ুকে ভারতীয় ঋষিরা মোট সাতটি ভাগে ভাগ করেছিলেন। এই সাতটি বায়ুমার্গ সাতটি বায়ুপ্রবাহের নামে চিহ্নিত। এগুলি হলো– প্রবহ, বহ, উদ্বহ, সংবহ, বিবহ, পরিবহ ও পরাবহ।

হিন্দু দর্শনে, শরীরে অবস্থিত বায়ুকে পাঁচ ভাগে ভাগ করা হয়েছে। যথা :
ক. প্রাণ : এই বায়ু হৃদয়ে থাকে এবং রক্ত চলাচলে সহায়তা করে।
খ. অপান : এই বায়ু গুহ্যদেশে থাকে এবং প্রাণ বায়ুর সহায়তা ও আহার্য চালিত করে।
গ. সমান : এই বায়ু নাভিদেশে থাকে এবং পাক কার্য সম্পন্ন করে।
ঘ. উদান : এই বায়ু কণ্ঠদেশে থাকে এবং উদ্গার ও শ্বাস কার্যাদি সম্পন্ন করে।
ঙ. ব্যান : এই বায়ু সর্ব শরীরে থাকে এবং দেহ রক্ষা করে।

তারমানে এখানে কি দাঁড়ালো?
আমি কি ভুল ভাল বকছি?

না দাদা, সেটা নয়, পৃথিবী আর মানব দেহের যন্ত্রাংশ চালানোর জন্য বায়ুর প্রয়োজন সব সময়।
বায়ুকে যেমন আমরা ধরে রাখতে পারি না, ঠিক তেমন ভাবে, স্বাতী নক্ষত্রের মানুষদের সকল সময় আমাদের জীবনে কোন না কোনো কাজে লাগে এবং এদের মানসিক চিন্তা ভাবনা সুদূর প্রসারী। ধরে রাখা ভীষণ মুনকিল।

আমরা যারা জ্যোতিষ নিয়ে চর্চা করছি তারা সকলেই N.C Lahiry এর নাম শোনেননী এমন লোক বিরল।
ওনার চন্দ্রের অবস্থান স্বাতী নক্ষত্রে, এবার একবার ভেবে দেখুন, ওনার চিন্তা ভাবনা কতটা সুদূর প্রসারী ছিল, যতদিন জ্যোতিষ বিজ্ঞান বেঁচে থাকবে ততদিন ওনার নাম জিবিত থাকবে।

যে সকল আধুনিক জ্যোতিষ পাঠকগণ আছেন, বর্তমানে তারা c.s.patel এর সর্বাষ্ঠক বর্গ সম্পকে জানেন নিশ্চই, ওনার মহান বই গুলো আধুনিক জ্যোতিষ বিজ্ঞানের অলংকার।
ওনার জন্ম কুন্ডলীতে চন্দ্রের অবস্থান স্বাতী নক্ষত্রে।

আমার গুরুদেব যিনি আমাকে জ্যোতিষ বিদ্যা দিয়েছেন, যিনি আমাকে দীক্ষা দিয়েছেন, আমাকে বেঁচে থাকার অনুপ্রেরণা দিয়েছেন, উনি আজকের সমাজের আমার দেখা শ্রেষ্ট দার্শনিক আমার কাছে, ওনার জন্ম কুন্ডলীতে চন্দ্রের অবস্থান স্বাতী নক্ষত্রে।

আসলে এক কথায় বলা যেতে পারে, এদের চিন্তা ভাবনা ভীষণ আধুনিক, অনেক দূর পর্যন্ত এরা কল্পনা করে নিতে পারে।

সাধারণ পাঠকগণ এইসব মানুষদের না চিনতেও পারেন, তাদের সুবিধার জন্য বলি,
charlie chapline কে নিশ্চই চেনেন আপনারা।
আজথেকে 100 বছর আগে উনি যা রচনা করে গেছেন, আগামী 200 বছরের তা পূরান হবে বলে আমার মনে হয়না।
আপনারা কি বলেন?

হিন্দু পৌরাণিক যুগে বায়ু দেবতাকে পবন দেবতা হিসেবে উল্লেখ পাওয়া যায়। অঞ্জনা একদিন রঙিন কাপড় পরে বাগানে ভ্রমণ করছিলেন। এমন সময় বায়ু এঁর কাপড় উড়িয়ে নিয়ে যান। বানরী এতে চমকিতা হয়ে উঠলে বায়ু বললেন যে, তিনি ইতিমধ্যেই অঞ্জনাতে উপগত হয়েছেন। এই মিলনের ফলে জন্ম হয়েছিল হনুমানের।

হুমুমান যেমন তার ভক্তি দিয়ে শ্রী রামের সেবা করে ছিলেন, এই সকল জাতকের মনে ভক্তি আর ভালোবাসার প্রকোপ দেখা যায়।

মহেশ যোগীর কেতু এই নক্ষত্রে।
মুরারী বাপুর jup/mars এই নক্ষত্রে।
রাধা মাধব (iscon) এর sat/sun/mer এই নক্ষত্রে।
রামকৃষ্ণ ঠাকুরের শনি এই নক্ষত্রে অবস্থান করছে।

কুন্তী মন্ত্র দ্বারা এই দেবতাকে আবাহন করে এঁর সাথে মিলিত হন। এই মিলনের ফলে দ্বিতীয় পাণ্ডব ভীমের জন্ম হয়। ভীমের শৌর্য বীর্যের মতন মানসিক দৃঢ়তা থাকে এই সকল মানুষের।

মহাত্মা গান্ধীর জন্ম কুন্ডলীতে লগ্নে স্বাতী নক্ষত্রে, ওনাকে দেখলেই বোঝা যায় কতটা মানসিক শক্তি থাকতে পারে এই জাতকের।

আপনাদের নিশ্চই মনে আছে ঈশ্বর চন্দ্র বিদ্যসাগররের বিধবা বিবাহের কথা, তৎকালীন মানুষ জন ওনাকে পাথর ছুড়ে মেরেছিলেন, কিন্তু উনি বিপথ হননি।
ওনার মঙ্গল এই নক্ষত্রে।

লৌহ মানব নামে পরিচিত আমাদের সকলের প্রিয় মানুষ ” সরদার বল্লভ ভাই প্যাটেল” এর mer/sun/jup স্বাতী নক্ষত্রে।

কিছু প্রচলিত কথা এই নক্ষত্র নিয়ে।

রাজনীতির কৌশল আপনার জন্য কোন অচেনা জিনিস নয়। এই কারণেই আপনাকে সবসময় সজাগ এবং সচেতন থাকতে হবে। কঠোর পরিশ্রমের সঙ্গে আপনি খুব ভালভাবে আপনার বুদ্ধি ব্যবহার করবেন এবং আপনার কাজ দক্ষতার সঙ্গে সম্পন্ন করবেন। আপনার চরিত্র ভাল হবে; যে কারণে মানুষের সাথে আপনার সম্পর্কও ভাল হবে। শুধুমাত্র আপনার চরিত্র এবং আচরণের কারণে, মানুষ আপনাকে বিশ্বাস করবে। যেহেতু আপনার মানুষের জন্য ভাল অনুভূতি আছে, তাই আপনি তাদের সমর্থন পাবেন এবং সমাজের মধ্যে ভাল সুনামও পাবেন। অন্য ব্যক্তিদের জন্য আপনার হৃদয়ে সমবেদনা ও সহানুভূতি আছে। মুক্ত মানসিকতার জন্য, আপনি চাপে কাজ করা পছন্দ করেন না। কেইজন্য আপনি যে কাজই করুন না কেন আপনি সম্পূর্ণ স্বাধীনতা আশা করেন। পেশা বা ব্যবসা যাই হোক না কেন আপনি সবকিছুতেই সফল হবেন। তবে আপনার অবস্থা পেশা, ব্যবসা, ইত্যাদি দিক থেকে বেশ ভাল। আপনি উচ্চাভিলাষী তাই আপনি উচ্চতা পৌঁছানোর জন্য সবসময় প্রস্তুত থাকবেন। একটি সঠিক পরিকল্পনার সঙ্গে আপনি প্রতিটি কাজ খুব ধৈর্য সহকারে সম্পন্ন করবেন। আপনি আপনার লক্ষ্যে পৌঁছতে তাড়াহুড়ো করবেন না। আপনার মুখ সবসময় একটি হাসিতে অলংকৃত থাকবে। আপনি নিষ্ঠার সঙ্গে সামাজিক রীতিনীতি এবং ঐতিহ্য অনুসরণ করবেন। আপনার চিন্তাধারা শান্তিপূর্ণ, দৃঢ় এবং পরিষ্কার হবে। এই কারণে আপনি আপনার কাজের সমালোচনা পছন্দ করেন না। আপনি যেমন অন্য কারোর কাজে বাধা দেন না তেমনই আপনি একই জিনিস আশা করেন। একটা ভাল ভবিষ্যত গড়ার জন্য, আপনাকে আপনার মানসিক ভারসাম্য বজায় রাখতে হবে এবং রাগ এড়িয়ে চলতে হবে।

health issue

Harnia
Eczema
Skin problem
Kidney problem..

সম্রাট বোস

7890023700

samrat bose

Even after bagging all such degrees astrologer Samrat Bose still doing a vigorous research on “Astro Bastu” presen

https://www.samratastrology.com

Leave a Reply

Back To Top
shares